সোমবার, মে ২০, ২০২৪

শরীয়তপুরে সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনায় মামলা

মো. আব্দুর রহিম, শরীয়তপুর প্রতিনিধি :

শরীয়তপুরের জাজিরায় চাঞ্চল্যকর মন্টু বেপারী হত্যা মামলার তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে এক সাংবাদিক হামলা ও হেনস্তার শিকার হয়েছেন। এঘটনা নিহত মন্টু বেপারীর ভাই ও মন্টু বেপারী হত্যা মামলার বাদীসহ ১২ জনকে আসামী করে জাজিরা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী সাংবাদিক।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার (২৩ মার্চ) বিকালের দিকে উপজেলার সেনেরচর ইউনিয়নের চরধুপুর ভোলাই মুন্সি কান্দি গ্রামে সংবাদ সংগ্রহে গেলে দৈনিক আজকের সংগ্রামের জাজিরা উপজেলা প্রতিনিধি নুর আলমের উপর এ হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় তাকে মারধরসহ মোবাইল ও গাড়ির চাবি ছিনিয়ে নেয় হামলাকারীরা। পরে মোবাইলে থাকা প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস ডিলিট করে দেয়। এরপর আরো কয়েকজন মিলে মারধরসহ বেধে রাখার জন্য একাধিকবার সাংবাদিকের হাতে গামছা বাঁধার চেষ্টা করেন। এসময় তারা মোবাইল, টাকাসহ ম্যানিব্যাগ, হাতঘড়ি ও গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ) জাজিরা উপজেলা শাখার পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। এর পরে উক্ত সংগঠনের পক্ষ থেকে একটি প্রতিবাদ লিপি দেওয়া হয়েছে।

এবিষয়ে ভুক্তভোগী সাংবাদিক নুর আলম বলেন, একটি নিউজ প্রকাশের জন্য কিছু তথ্যের প্রয়োজনে আমি ঐ এলাকায় যাই। তথ্য সংগ্রহ শেষে বাড়ি ফেরার পথে নিহত মন্টু বেপারীর বাড়ির কাছে পৌছালে মন্টু বেপারীর ভাই পরিচয়ে একজন আমার মটর সাইকেল থামায়। থামানোর সঙ্গে সঙ্গেই সে আমার গাড়ীর চাবিটি নিয়ে নেয়। কেনো চাবি নিচ্ছেন জিজ্ঞেস করলেই সে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন। এরপর নিহত মন্টু বেপারীর ছেলে এসে আমার মোবাইল ছিনিয়ে নেয় এবং সাথে থাকা লোকজন আমাকে মারধর করে । এঘটনায় আমি জাজিরা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছি। আশা করি ন্যায় বিচার পাবো।

জানতে চাইলে  মামলায় প্রধান অভিযুক্ত মন্টু বেপারীর ভাই হারুন বেপারী বলেন, আমার ভাইকে হত্যা করা হয়েছে। সেখানে আমাদের কাছ থেকে কোন তথ্য না নিয়ে ঐ সাংবাদিক খুনিদের পক্ষে কাজ করার চেষ্টা করছিল। আমরা তা বুঝতে পেরে তাকে থামিয়ে জানতে চেয়েছি, কেন এলাকায় এসেছে। তখন কথায় কথায় একটু বাকবিতণ্ডা হয়েছে। আমরা তাকে কোন মারধর করিনি।

জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, এবিষয়ে ভুক্তভোগী সাংবাদিক একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। আমরা প্রাথমিক তদন্ত করে মামলা রুজু করেছি। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলমান আছে।

উল্লেখ্য, গত ১ মার্চ একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ শেষে বাড়ী ফেরার পথে সেনেরচর চরধূুপুরিয়া সাকিমালী মুন্সী কান্দি এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ভোলাই মুন্সী কান্দির বাসিন্দা আর্শেদ আলী বেপারীর ছেলে মন্টু বেপারীকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img
আরও
- Advertisement -spot_img